প্রা'ণ ফিরছে শেরে-বাংলা স্টেডিয়ামে

প্রায় ৪ মাস অব'রুদ্ধ থাকার পর প্রা'ণ ফিরতে যাচ্ছে শের-ই-বাংলায়। ঐচ্ছিক অনুশীলনে অংশ নিতে পারবেন ক্রিকেটাররা। শনিবার থেকে অনুশীলনের অনুমতি দিয়েছে বিসিবি। যেখানে মানতে হবে বেশ কয়েকটি স্বাস্থ্যবিধি। ট্রেনিং করতে হবে ব্যক্তিগত কিংবা ছোটছোট দলে। ক্রিকেটারদের মাঠে ফেরাকে ইতিবাচক বলছেন সাবেকরা। পাশাপাশি স্বাস্থ্য সুরক্ষায় সতর্ক থাকার-ও পরাম'র্শ তাদের।

করো'নাকাল এ যেন এক দু:স্বপ্নকাল। সংখ্যার হিসেবে ৪ মাসেরও বেশি সময়। অবশেষ খুলতে যাচ্ছে বন্ধ দরজা। প্রা'ণ ফিরছে প্রা'ণের হোম অব ক্রিকে'টে। শুরু হচ্ছে ক্রিকেটারদের ঐচ্ছ্বিক অনুশীলন। প্রস্তুত হচ্ছে মাঠ, প্রস্তুত হচ্ছে উইকেট।
ক্রিকেটারদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার কথা চিন্তা করে স্টেডিয়ামের বেশ কয়েকটি স্থানে সব ধরণের প্রবেশে থাকবে কড়াকড়ি। ঐচ্ছিক অনুশীলনেও থাকবে বাধ্যবাধকতা। ফিটনেস কিংবা ব্যাটিং-বোলিং অনুশীন হবে ছোট ছোট গ্রুপে অথবা ব্যক্তিগত। যে জন্য বরাদ্দ থাকবে নির্দিষ্ট সময়।

আপাতত ইনডোর কিংবা সেন্টার উইকে'টে করা যাবেনা ব্যাটিং বোলিং অনুশীলন। তবে ক্রিকেটারদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে একাডেমি মাঠ। স্বাস্থ্যবিধি মেনে মূল মাঠে করা যাবে শুধু রানিং আর স্ট্রেচিং। ইতোমধ্যে অনুশীলে আগ্রহী ক্রিকেটারদের তালিকাও জমা দেয়া হয়েছে বোর্ডে।
তবে এখানেও আছে কিন্তু। বিশেষ করে গেলো কয়েকমাসে ঘরবন্দী ক্রিকেটাররা। অনুশীলনে ফেরাটা তাদের জন্য স্বস্তির হলেও হঠাৎ মাঠে ফেরায় দিতে পারে ইন'জুরির হানা। এ বিষয়ে সতর্ক থাকার পাশাপাশি সাবেকরা দিলেন নানান পরাম'র্শ। পরিস্থিতির বিবেচনায় সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ঈদের পর জাতীয় দলকে একসঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে ফেরানো হতে পারে অনুশীলনে।

Back to top button