১৮ হরিণের চামড়াসহ দুই শিকারি আ'ট'ক

বাগেরহাটে ১৮টি হরিণের চামড়াসহ দুই চো'রা শিকারিকে আ'ট'ক করেছে র‌্যা'­ব-৬। শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) বিকেলে মা'মলা দায়ের করে আ'ট'ক চো'রা শিকারি ও জ'ব্দ হরিণের চামড়া বাগেরহাট মডেল থা'নায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

র‌্যা'­ব-৬ খুলনার সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এএসপি মো. বজলুর রশীদ গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বি'জ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান।

এর আগে বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) বিকেলে গো'পন সংবাদের ভিত্তিতে বাগেরহাট সদর উপজে'লার বারাকপুর বাজারের কাশেম প্লাজা মা'র্কে'টে অ'ভিযান চালিয়ে তাদের আ'ট'ক করা হয়।

এসময়, চো'রা কারবারিদের ব্যবহৃত ২টি মুঠোফোন ও নগদ দুই হাজার টাকা জ'ব্দ করা হয়।

আ'ট'ককৃতরা হলেন- বাগেরহাট জে'লার মোড়েলগঞ্জ উপজে'লার বহরবনিয়া এলাকার মৃ'ত রফিজ উদ্দিন ফরাজীর ছে'লে মো. আব্দুল হাকিম (৫০) এবং শরণখোলা উপজে'লার সোনাতলা গ্রামের মৃ'ত আলী মিয়া হাওলাদারের ছে'লে মো. কাম'রুল ইস'লাম (৩৫)।

র‌্যা'­ব-৬ খুলনার সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এএসপি মো. বজলুর রশীদ বলেন, গো'পন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার বিকেলে বারাকপুর বাজারের কাশেম প্লাজায় অ'ভিযান চালিয়ে দুই চো'রা শিকারিকে হরিণের চামড়াসহ আ'ট'ক করা হয়।

পরস্পর যোগসাজশে সুন্দরবন থেকে হরিণের চামড়া ও মাংস সংগ্রহ করে দেশের বিভিন্ন স্থানে উচ্চ বিলাসী মানুষের কাছে অধিক মুনাফার লো'ভে সরবরাহ করত বলে জিজ্ঞাসাবাদে শিকার করেছে চো'রা শিকারিরা।

পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মা'মলা দায়ের করে তাদেরকে বাগেরহাট মডেল থা'নায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

এটাই একসঙ্গে সর্বোচ্চ হরিণের চামড়া আ'ট'কের ঘটনা নয়, এর আগে এ বছরের ২৩ জানুয়ারি শরণখোলা থেকে ১৯টি হরিণের চামড়াসহ দুই চো'রা শিকারিকে আ'ট'ক করে বাগেরহাট জে'লা পু'লিশ।

Back to top button