না বলে বিস্কুট খাওয়ায় শি'শুকে বেঁধে নি'র্যাতন

মাদারীপুর সদর উপজে'লার মস্তফাপুর ইউনিয়নে না বলে বিস্কুট খাওয়ায় চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ুয়া এক শি'শুকে বেঁধে নি'র্যাতনের অ'ভিযোগ উঠেছে। অ'ভিযোগ, শি'শুটির দুই হাত মোটা রশি দিয়ে বেঁধে পে'টানো হয়েছে মোটা কাঠের লা'ঠি দিয়ে।

নি'র্যাতনের ফলে আ'হত শি'শুটিকে ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতা'লে। সোমবার (২ জানুয়ারি) ঘটনাটি ঘটেছে সদর উপজে'লার মস্তফাপুর ইউনিয়নের নওহাটা গ্রামে। এ ঘটনায় সোমবার রাতে মাদারীপুর সদর থা'নায় লিখিত অ'ভিযোগ দায়ের করেছে ভূক্তভোগী পরিবার।

স্থানীয়রা ও ভূক্তভোগীর স্বজনরা জানায়, পশ্চিম নওহাটা এলাকার দুলাল ফকিরের ছে'লে লিওন বাড়ির পাশের মান্নার খাঁর দোকান থেকে এক প্যাকেট বিস্কুট খায়। না বলে বিস্কুট নেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন মান্নান খাঁ। এক পর্যায়ে শি'শুটির হাত বেঁধে বাড়িতে নিয়ে কাঠ দিয়ে মা'রধর করেন। খবর পেয়ে শি'শুটির মা ছুটে এসে অনুরোধ করে শি'শুটিকে ছাড়িয়ে বাসায় নিয়ে যান। মা'রধরে শি'শুটি অ'সুস্থ হয়ে পড়লে স্বজনরা তাকে মাদারীপুর সদর হাসপাতা'লে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করেন। এ ঘটনায় রাতে মাদারীপুর সদর থা'নায় লিখিত অ'ভিযোগ করেন।

শি'শু লিওন বলে, আমা'র বন্ধু আমিন খাঁ আমাকে বিস্কুট নিতে বলেছিলো। ওর জন্য এক প্যাকেট আর আমা'র জন্য এক প্যাকেট নিয়েছি। পরে দোকানদার এসে আমাকে দড়ি দিয়ে হাত বেঁধে কাঠের লা'ঠি দিয়ে মা'রে। আমি অনেকবার ক্ষমা চেয়েছি, ওনি আমা'র কথা শোনেনি। লিওনের মা তার ছে'লেকে অমানুষিকভাবে মা'রধরের বিচার দাবী করেছেন।

মাদারীপুর সদর হাসপাতা'লের মেডিক্যাল অফিসার ডা. আবু সফর হাওলাদার বলেন, শি'শুটির বাঁ হাতের বাহুতে আ'ঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাছাড়া দুই হাতে মোটা দড়ির দাগ রয়েছে। আম'রা প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে শি'শুটিকে হাসপাতা'লে ভর্তি রেখেছি। এ বিষয়ে মাদারীপুর সদর থা'নার ভা'রপ্রাপ্ত কর্মক'র্তা (ওসি) মনোয়ার হোসেন চৌধুরী বলেন, ঘটনাস্থলে পু'লিশ পাঠানো হয়েছে। ত'দন্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Back to top button