রাজকে প্রাক্তন বললেন পরী, রাজ বললেন ‘সারা রাত ঘুমাইনি’

ঢাকাই সিনেমা'র চিত্রনায়িকা পরীমণি ও চিত্রনায়ক শরিফুল রাজের সংসার ভাঙছে। বিষয়টি নিয়ে পরীমণি ইতিমধ্যেই বেশ কিছু স্ট্যাটাস দিলেও মুখে কুলুপ এঁটেছেন তার স্বামী রাজ।

বছরের শুরুর দিনে পরীমণি নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে র’ক্তা’ক্ত বিছানার ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন। তিনি শীঘ্রই সংবাদ সম্মেলনে আসছেন বলেও জানান। এ পোস্টের ১২ ঘন্টা পর আবারও এক স্ট্যাটাস দিয়েছেন তিনি। যেখানে লিখেছেন, একটা স'ম্পর্কে পুরোপুরি সিরিয়াস বা খুব করে না চাইলে একটা মে'য়ে, বাচ্চা নেয়ার মতো এত বড় সিদ্ধান্ত নিতে পারে না কখনোই।

আমা'র জীবনের সবটুকু চেষ্টা যখন এই স'ম্পর্কটাকে ঠিকঠাক টিকিয়ে রাখা তখনই আমাকে পেয়ে বসা হলো। যেন, শত কোটি বার যা ইচ্ছে তাই করলেও সব শেষে ওই যে আমি মানিয়ে নেই এটা রিতিমতো দারুন এক সাংসারিক সুত্র হয়ে দাঁড়ালো।

আমি জো'র দিয়ে বলতে পারি আমাদের এই স'ম্পর্ক এত দিন আমা'র এফোর্টে টিকে ছিলো শুধু। কিন্তু বারবার গায়ে হাত তোলা পর্যায়ে পৌছালে কোন স'ম্পর্কই আর স'ম্পর্ক থাকেনা। স্রেফ বিষ্ঠা হয়ে যায়। রাজ্যের দিকে তাকিয়ে বার বার সব ভুলে যাই। সব ঠিক করার জন্যে পরে থাকি। কিন্তু তাতে কি আসলেই আমা'র বাচ্চা ভালো থাকবে! না । একটা অ'সুস্থ স'ম্পর্ক এত কাছে থেকে দেখে দেখে ও বড় হতে পারে না। তাই আমি, রাজ্য এবং রাজের মঙ্গল এর জন্যেই আলাদা হয়ে গেলাম।

রাজ এখন শুধু আমা'র প্রাক্তন’ই না,আমা'র ছে'লের বাবাও। তাই রাজ্যের বাবার সন্মান রাখতে পাবলিকলি আর বাকি কিছু বলছি না আমি। তবে আমা'র উপর তার আর তার পরিবারের কোন অ'সুস্থ আচরন বা হার্মফুল কিছু করার চেষ্টা করলে আমি কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হবো।

সম্মানিত গণমাধ্যমকর্মী যারা রয়েছেন আপনারা নিশ্চই আমা'র মানসিক অবস্থা বুঝতে পারবেন আশা করছি। আমাকে একটু সময় দিন। শারীরিক ভাবেও আমি বি'ধ্বস্ত। রাজ্য তার বাবা মাকে একসাথে নিয়ে বড় হতে পারলো না এর থেকে ক'ষ্টের আর কি হতে পারে আমা'র কাছে……!

এদিকে এ ঘটনার পর থেকে অনেক চেষ্টা করেও শরীফুল রাজকে পাওয়া যাচ্ছে না। তিনি ফোন রিসিভ করছেন না। তবে গণমাধ্যমে কয়েক সেকেন্ডের বক্তব্যে রাজ বলেন, ‘আমি আসলে এসব ইস্যুতে কিছুই বলতে চাই না। কী' হচ্ছে এসবের কিছুই আমি জানি না, জানতেও চাই না। আমি বাসায় আছি। সারা রাত ঘুমাইনি। এখন ঘুমানোর চেষ্টা করছি।’

Back to top button