১০ ঘন্টার যাত্রা হবে মাত্র আড়াই ঘণ্টায়, ভা'রতীয় রেলের বড় চ'মক

ভা'রতে ট্রেন পরিষেবা ব্যাপকভাবে ব্যবহার করা হয়। দূরে কোথাও যাওয়ার জন্য মোটামুটি সাধ্যের মধ্যে খরচে কম সময়ে পৌঁছে যাওয়া যায় এক্সপ্রেস ট্রেনের মাধ্যমে। সর্বস্তরের মানুষ এই রেল পরিষেবা স্বাচ্ছন্দে ব্যবহার করতে পারেন।

আর এই রেল পরিষেবা উন্নতিকরনের কাজে নিরলস পরিশ্রম করে চলেছে ভা'রতীয় রেল। এবার ভা'রতীয় রেলের প্রচেষ্টায় ভা'রতের প্রধান দুই তথ্যনগরী বেঙ্গালুরু এবং হায়দ্রাবাদ চলে এল ‘আরো কাছাকাছি’।

আসলে বেঙ্গালুরু এবং হায়দ্রাবাদ শহরের মাঝে বসেছে আধা হাই স্পিড রেল ট্র্যাক। এই রেল ট্রাকে ২০০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টায় ট্রেন চলতে পারে। এর ফলে আগামী দিনে ব্যাঙ্গালোর থেকে হায়দ্রাবাদ যেতে সময় লাগবে মাত্র আড়াই ঘন্টা।

ভা'রতীয় রেল সূত্রে খবর, বেঙ্গালুরুর ইয়েলাহাঙ্কা স্টেশন থেকে হায়দ্রাবাদের সেকেন্দ্রাবাদ পর্যন্ত রেললাইন বসানোর পরিকল্পনা রয়েছে ভা'রতীয় রেলের। এর ফলে মোট ৫০৩ কিলোমিটার কভা'র করা হবে। পিএম গতিশক্তি মিশনের আওতায় এই কাজ হওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। এই সেমি হাইস্পিড রেলওয়ে ট্র্যাকের দুপাশে ১.৫ মিটার উচ্চতার দেওয়াল দেওয়া হবে। এর ফলে ট্রেন কোনো বাধা-বিপত্তি ছাড়াই ২০০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা বেগে ছুটতে সক্ষম হবে।

বর্তমানে বেঙ্গালুরু থেকে হায়দ্রাবাদ পর্যন্ত যে রেলপথ রয়েছে তার দৈর্ঘ্য প্রায় ৬২২ কিলোমিটার। বর্তমানে এই রাস্তা যেতে সময় লাগে ১০ থেকে ১১ ঘন্টা। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী গতিশক্তি যোজনা আওতায় সত্যিই এই রেলপথ নির্মিত হলে হায়দ্রাবাদ থেকে ব্যাঙ্গালোর পৌঁছাতে সময় লাগবে মাত্র আড়াই ঘন্টা।

এই প্রকল্পের জন্য মোট খরচ হবে ৩০ হাজার কোটি টাকা। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, অ'তি সম্প্রতি ভা'রতীয় রেলের তরফে ২০০ টি বন্দে ভা'রত ট্রেনের জন্য টেন্ডার ডা'কা হয়েছে। এই ট্রেনগু'লির সর্বোচ্চ গতিবেগ ২০০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা। এছাড়া ১৬০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা গতিবেগের ৩০০ টি বন্দে ভা'রত ট্রেন চালানোর পরিকল্পনা রয়েছে ভা'রতীয় রেলের।

Back to top button