ঢাকায় আর্জেন্টিনার দূতাবাস স্থাপনের ঘোষণা

২০২৩ সালে ঢাকায় দূতাবাস স্থাপন করবে আর্জেন্টিনা। দেশটির রাষ্ট্রপতি আলবার্তো ফার্নান্দেজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবর পাঠানো চিঠিতে এ বিষয়ে জানিয়েছেন।আর্জেন্টিনার নিকটতম ব্রাজিলের ব্রাসিলিয়ায় অবস্থিত বাংলাদেশের দূতাবাস থেকে এক সংবাদ বি'জ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, ফিফা বিশ্বকাপ শিরোপা জয়ে আর্জেন্টিনার রাষ্ট্রপতি ও জনগণকে অ'ভিনন্দন জানিয়ে শুভেচ্ছাবার্তা পাঠিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর জবাবে আর্জেন্টিনার রাষ্ট্রপতি আলবার্তো ফার্নান্দেজ প্রধানমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা ও আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়ে চিঠি দিয়েছেন। ওই চিঠিতে তিনি ঢাকায় আর্জেন্টিনার দূতাবাস স্থাপনের ঘোষণা দেন।

দূতাবাস স্থাপনের মাধ্যমে দুই দেশের জনগণ ভ্রাতৃত্ব ও সম্প্রীতির দৃঢ়বন্ধনে আবদ্ধ হবে বলে আর্জেন্টিনার রাষ্ট্রপতি অ'ভিমত ব্যক্ত করেছেন। আর্জেন্টাইন ফুটবলের বিশ্বজয়ে বাংলাদেশের আপাম'র জনসাধারণের প্রা'ণোচ্ছল উদযাপনে আর্জেন্টিনার জনগণ ও রাষ্ট্রপতি অ'ভিভূত হয়েছেন। আলবার্তো বলেন, খেলাধুলা মানুষের মধ্যে বন্ধন ও সম্প্রীতি বৃদ্ধির একটি অর্থবহ ও শক্তিশালী মাধ্যম।

বি'জ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, আর্জেন্টিনা ফিফা বিশ্বকাপ জয়ের পর দুই দেশের সরকারপ্রধানের শুভেচ্ছাবার্তা বিনিময় কূটনৈতিক প্রচেষ্টার ফসল। এটি দক্ষিণ আ'মেরিকাতে বাংলাদেশের একটি বড় কূটনৈতিক সাফল্য।

আর্জেন্টিনার ফুটবলের প্রতি বাংলাদেশের মানুষের আগ্রহ দীর্ঘদিনের। বিশ্বকাপ ফুটবল শুরু হলে দেশটির প্রতি সম'র্থন যেন বহুগুণে বেড়ে যায়। আর্জেন্টিনার পতাকার রঙে কেউ ঘর তৈরি করেন, কেউ নিজের রিকশাকে রাঙিয়ে তোলেন। কেউ আবার মাইলের পর মাইল লম্বা পতাকা তৈরি করে তাক লাগিয়ে দেন।

অর্জেন্টিনার জয়ে যেন বাধভাঙা উচ্ছ্বাস সব কিছুকে ছাপিয়ে যায়। এসব কথা আর্জেন্টিনার শীর্ষ পর্যায়ের লোকজনের অজানা নয়। সেখানকার গণমাধ্যমেও জায়গা পেয়েছে আর্জেন্টিনা ভক্তদের কা'ণ্ড। এবারের বিশ্বকাপ ঘিরে মেসিদের জয়ের প্রত্যাশার পাশাপাশি বাংলাদেশে দেশটির দূতাবাস চালুর দাবিও ছিলো।

আশা করা যাচ্ছে, ঢাকায় আর্জেন্টিনার দূতাবাস চালু হলে দক্ষিণ আ'মেরিকাতে বাংলাদেশের বাণিজ্য-বাজার সম্প্রসারণের সুযোগ সৃষ্টি হবে। দক্ষিণ আ'মেরিকার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সয়াবিন উৎপাদক দেশ আর্জেন্টিনা থেকে সয়াবিন তেল আম'দানি সহ'জতর হবে। সেই সঙ্গে মা'রকসুরের বাণিজ্য-বাজারে বাংলাদেশের প্রবেশ বেগবান হবে বলে আশা করা যাচ্ছে।

ঢাকাতে আর্জেন্টিনার দূতাবাস স্থাপনের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে ব্রাসিলিয়াস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস। সেইসঙ্গে আর্জেন্টিনা ও বাংলাদেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা বৃদ্ধির প্রয়াস অব্যাহত রাখার অঙ্গীকার ব্যক্ত করছে।

Back to top button