ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ: ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত, মঙ্গলবার পর্যন্ত হবে বৃষ্টি

বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদ’ ভা'রতের ওড়িশা ও অন্ধ্র প্রদেশের দিকে এগিয়ে যেতে থাকলেও গতিপথ পরিবর্তন করে সেটি বাংলাদেশের দিকে আসছে। আজ রবিবার সকালে ওড়িশা উপকূলে গিয়ে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। পরে আজ রাতেই তা নিম্নচাপ আকারে আসতে পারে বাংলাদেশ উপকূলে। এর প্রভাবে এরই মধ্যে উপকূলীয় এলাকায় বৃষ্টি শুরু হয়েছে। সেখানে দমকা বা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি হতে পারে। এর প্রভাবে সাগর উত্তাল রয়েছে। এই বৃষ্টি অব্যাহত থাকতে পারে আগামী মঙ্গলবার পর্যন্ত।

এদিকে ঘূর্ণিঝড়ের শ'ঙ্কায় কক্সবাজার ও টেকনাফ থেকে সেন্ট মা'র্টিনের পথে যাতায়াতকারী সব জাহাজ চলাচল আজ রবিবার সকাল থেকে বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। টেকনাফের উপজে'লা নির্বাহী কর্মক'র্তা জানিয়েছেন, আবহাওয়া পরিস্থিতি ভালো না হওয়া পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা জারি থাকবে।

ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৫৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের টানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৬২ কিলোমিটার, যা দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়ার আকারে ৮৮ কিলোমিটার পর্যন্ত বাড়ছে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের কাছে সাগর খুবই উত্তাল রয়েছে। এ জন্য চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরগুলোকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কসংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত মাছ ধ'রার নৌকা ও ট্রলারগুলোকে উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস বলেন, ‘ঘূর্ণিঝড়টি স্থলভাগে ওঠার আগেই মূলত দুর্বল হয়ে পড়বে। আর তা আমাদের দেশের উপকূলে আসতে আসতে নিম্নচাপে পরিণত হবে।’ দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, খুলনা, বরিশাল ও পটুয়াখালী অঞ্চলগুলোর ওপর দিয়ে পূর্ব বা উত্তর-পূর্ব দিক দিয়ে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে দমকা বা ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে, সেই সঙ্গে বৃষ্টি বা বজ বৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্কসংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

গতকাল সন্ধ্যায় বাংলাদেশের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রাজশাহী, ঢাকা ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ সহ বৃষ্টি হতে পারে। দেশের অন্য এলাকায় আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। সকালের দিকে দেশের কোথাও কোথাও হালকা কুয়াশা পড়তে পারে।

Back to top button