নিউমা'র্কে'টে সং'ঘর্ষ, পু'লিশের দুই মা'মলায় আ'সামি ১২০০

রাজধানীর নিউমা'র্কেট এলাকায় ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ব্যবসায়ীদের সং'ঘর্ষের ঘটনায় পু'লিশ বাদী হয়ে দুটি মা'মলা করেছে। মা'মলা দুটির বাদী নিউমা'র্কেট থা'নার উপপরিদর্শক (এসআই) মেহেদী হাসান ও পরিদর্শক (ত'দন্ত) ইয়ামিন কবির। দুই মা'মলায় নিউমা'র্কে'টের ব্যবসায়ী, কর্মচারী ও ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীসহ মোট ১২০০ জনকে আ'সামি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২১ এপ্রিল) সকালে গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন নিউমা'র্কেট থা'নার ভা'রপ্রাপ্ত কর্মক'র্তা (ওসি) শ ম কাইয়ুম। তিনি বলেন, ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ব্যবসায়ীদের সং'ঘর্ষের ঘটনায় পু'লিশের ওপর হা'মলার অ'ভিযোগে ২৪ জন এজাহারনামীয়সহ ব্যবসায়ী-কর্মচারী অ'জ্ঞাতনামা ৩শ’ জন। এছাড়া একই মা'মলা অ'জ্ঞাতনামা হিসেবে ঢাকা কলেজের ৭০০ জনকে আ'সামি করা হয়েছে।তিনি আরও বলেন, বি'স্ফো'রক দ্রব্য আইনে করা আরেকটি মা'মলায় অ'জ্ঞাতনামা দেড়শ থেকে দুইশজনকে আ'সামি করা হয়েছে।

এর আগে সোমবার রাতে রাজধানীর নিউমা'র্কে'টের একটি খাবারের দোকানের কর্মীদের সঙ্গে ঢাকা কলেজের কয়েকজন শিক্ষার্থীর কথা-কা'টাকাটি হয়। এর জেরে গভীর রাতে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সং'ঘর্ষে জড়ান নিউমা'র্কে'টের ব্যবসায়ী ও দোকানকর্মীরা। পরে পু'লিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কাঁদানে গ্যাস ও রবার বুলেট ছোড়ে। সং'ঘর্ষ রাত আড়াইটা পর্যন্ত গড়ায়।

এ ঘটনার জেরে মঙ্গলবার সকাল থেকে দিনভর দুই পক্ষের মধ্যে সং'ঘর্ষ হয়। বিকালে পু'লিশ এসে কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করে দুই পক্ষকে সরালেও পরিস্থিতি শান্ত হয়নি। ঢাকা কলেজের ছাত্রদের বিকেলের মধ্যে ছাত্রাবাস ছাড়ার নির্দেশনা দেওয়া হলেও তারা তা করেননি। রাত পৌনে নয়টা পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা কলেজের সামনে অবস্থান নিয়ে আছেন। অন্যদিকে নিউমা'র্কে'টের কাছে ব্যবসায়ীরাও অবস্থান নিয়ে আছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ওই এলাকায় বিপুলসংখ্যক পু'লিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এদিকে শিক্ষার্থী ও ব্যবসায়ীদের সং'ঘর্ষে নাহিদ (১৮) নামে এক ব্যক্তির মৃ'ত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতা'লে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃ'ত্যু হয়।

Back to top button